1. multicare.net@gmail.com : আমাদের পিরোজপুর ২৪ :
সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১২:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
নাজিরপুরে ইউপি মেম্বারের বিরুদ্ধে ২টি ব্রীজের লোহার মালামাল বিক্রির অভিযোগ ছাগলকাণ্ড : মতিউর রহমান হারাচ্ছেন সোনালী ব্যাংকের পরিচালকের পদ পিরোজপুরে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে আওয়ামীলীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত কাউখালীতে আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের শ্রদ্ধা উজিরপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত গজারিয়ায় আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ বরগুনায় সেতু ভেঙে মাইক্রোবাস খালে: কনে পক্ষের ১০ জন নিহত গলাচিপায় দেখা মিলল রাসেলস ভাইপার, আতঙ্কে উপজেলাবাসী মুন্সীগঞ্জে রাসেলস ভাইপার আতঙ্ক দূর করতে মাঠে ‘স্মার্ট ব্রিগেড’ মুন্সীগঞ্জে সিরাজদিখানে বাস- সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন নিহত

স্বরূপকাঠিতে বীরত্বের কথা বর্ননা করলেন ১৫৬ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা

  • প্রকাশিত: বুধবার, ১১ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৩৮৬ বার পড়া হয়েছে

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার ১৫৬ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা তাদের বীরত্বের কথা বর্ননা করলেন। মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রনালয়ের বীরগাথা প্রকল্পের আওতায় ওইসব মুক্তিযোদ্ধাদের যুদ্ধের কথার চিত্র গ্রহন করেছেন মন্ত্রনালয়ের ৪ কর্মকর্তাসহ ৩০ জনের টিম। ৯,১০ ও ১১ অক্টোবর প্রতিদিন সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ৮ জন চিত্র গ্রাহক ৮ টি ক্যামেরা ও ড্রোন ক্যামেরার মাধ্যমে ওই কার্যক্রম পরিচালনা করেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় ছারছীনা ও কুড়িয়ানা সহ যেসব স্থানে পাক হানাদার বাহিনী বেশি হত্যাযজ্ঞ ও ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে সেইসব স্থানে মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে তাদের কন্ঠে বিবরন ও বর্ননা শুনে তা চিত্রায়িত করা হয়।মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রনালয়ের ওই প্রকল্পের কো অর্ডিনেটর মো.আল আমিন মূল কর্যক্রম পরিচালনা করেন। বিশেষ দায়ীত্ব পালন করেন প্রশাসনিক কর্মকর্তা খন্দকার মো. সামিউল আলম, মো. আলী রসুল, মো. ইঞ্জামুল হক।এছাড়া মাকসুদা সুলতানা অক্যের পরিচালনায় শীর্ষ চিত্র গ্রাহক মানিক চৌধূরী ও তাঞ্জিম আহমেদ জিয়ার নেতৃত্বে ২৩ জন ক্যামেরাম্যান ও সহযোগী ক্যামেরাম্যানগন অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে কার্যক্রম সম্পাদন করেন।উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা কাজী মো. সাখাওয়াত হোসেন ও সাবেক সহকারী কমান্ডার(অর্থ) বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. নজরুল ইসলাম সার্বিক সহযোগীতা করেন।উল্লেখ্য মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে জীবিত ২৪৭ জন মুক্তিযোদ্ধাদের ফোনের মাধ্যমে উপস্থিত হওয়ার জন্য বলা হয়। কিন্তু ১৫৬ জন তাদের বক্তব্য তুলে ধরেন। এলাকায় না থাকায় ও অসুস্থতার কারনে অন্যসব মুক্তিযোদ্ধারা উপস্থিত হতে পারেননি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: 𝐘𝐄𝐋𝐋𝐎𝐖 𝐇𝐎𝐒𝐓