1. multicare.net@gmail.com : আমাদের পিরোজপুর ২৪ :
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৬:৫২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মঠবাড়িয়ার উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজের প্রার্থিতা বাতিল গলাচিপা উপজেলা পরিষদে প্রথম নারী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন ওয়ানা মার্জিয়া নিতু আতিকুজ্জামানে মৃত্যুতে বিশিষ্টজনদের শোক-প্রকাশ ফুলপুরে ১০০০ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক ১ পবিপ্রবিতে ‘পাওয়ারিং দ্যা ফিউচার’ শীর্ষক সেমিনার পবিপ্রবিতে অফিসার্স এসোসিয়েশনের মতবিনিময় সভা সেভেন স্টার বাস কাউন্টারের কর্মীদের হামলার শিকার পবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা, আহত ৫ ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মুকুল, ভাইস চেয়ারম্যান পিপুল ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নার্গিস নির্বাচিত উজিরপুরে চেয়ারম্যান প্রার্থী বাচ্চুর মোটর সাইকেল প্রতীকের কর্মীসভা ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ভারতীয় নিষিদ্ধ চিনি, মদ ও পিক-আপ সহ গ্রেফতার-৩

এমপির পরিদর্শনের পর রাতারাতি বদলে গেল ভেড়ামারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিত্র

  • প্রকাশিত: বুধবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৩১ বার পড়া হয়েছে

নাসিম উদ্দীন কুৃষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ

কুষ্টিয়া -২ আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য মোঃ কামরুল আরেফিন শনিবার (২০ জানুয়ারী) সন্ধ্যায় আকস্মিকভাবে ভাড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরিদর্শনকালে তিনি হাসপাতালের সার্বিক ও ব্যবস্থাপনায় অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসা সেবার মান যথাযথ ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে অনতিবিলম্বে সন্তোষজনক মানে নিয়ে আসার জন্য কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন।এমপির কড়া বার্তায় রাতারাতি বদলে গেছে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সেবার মান।যত্রতত্র আর আবর্জনার স্তূপ নেই।নেই দুর্গন্ধ।পরিচ্ছন্ন পরিবেশ বিরাজ করতে দেখা গেছে হাসপাতাল চত্বর সহ অভ্যন্তর ভাগে।বুধবার (২৪ জানুয়ারী) ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করে স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নতির প্রমাণ পাওয়া যায়।হাসপাতালে আগত রোগীরাও তাদের চোখে ইতিবাচক পরিবর্তন লক্ষ্য করেছেন।সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে রোগীরা সেবার মানের বিষয়ে তাদের ইতিবাচক মনোভাবের জানান দেন।হাসপাতালের বহির্বিভাগ, এক্সরে বিভাগ, প্যাথলজি, সনোলজি, জরুরী বিভাগ ও ইনডোরে দায়িত্বরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে মনোনিবেশ সহকারে আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় দেখা যায়।অথচ কদিন আগেও এই সরকারি হাসপাতাল নিয়ে সাধারণ মানুষ ও রোগীদের ছিল নানা অভিযোগ।এমপি কামারুল আরেফিনের পরিদর্শনের মধ্য দিয়ে এই হাসপাতাল যেন নতুন করে প্রাণ ফিরে পেয়েছে।হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও হাসপাতাল সংশ্লিষ্ট লোকজনসহ এলাকাবাসী অবিলম্বে হাসপাতালটিকে ১০০ শয্যার হাসপাতালে উন্নীত করবার জন্য আবেদন জানিয়েছেন।সেই সাথে চিকিৎসক ও ওয়ার্ড বয় ও ক্লিনার সংকট দূর করার জন্য সাংবাদিকদের কাছে দেয়া তাদের বক্তব্যের মাধ্যমে সরকারের যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করেছেন।হাসপাতালে দায়িত্বরত সেবিকারা তাদের নিরাপত্তার বিষয়টিও গুরুত্বর সাথে দেখার জন্য দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।ভেড়ামারা উপজেলা সহ পার্শ্ববর্তী এলাকার গণমানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করবার জন্য ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর গুরুত্ব অনেক। ‌ অবিলম্বে এ হাসপাতালটিকে আরো উন্নত ও আধুনিক হাসপাতালে পরিণত করবার পদক্ষেপ গ্রহণের দাবী এলাকাবাসীর

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: 𝐘𝐄𝐋𝐋𝐎𝐖 𝐇𝐎𝐒𝐓